দেশে ওডিআই ফেরার ম্যাচে পাকিস্তানের দাপুটে জয়

0
143

দীর্ঘ প্রায় এক দশক পর দেশের মাটিতে ওয়ানডে ম্যাচ খেলতে নামলো পাকিস্তান।আর এ ম্যাচেই দাপুটে এক জয় তুলে নিল দলটি। শ্রীলঙ্কাকে ৬৭ রানে হারিয়ে তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয়টি শেষে ১-০ ব্যবধানে লিড নিল সরফরাজ আহমেদের দল। প্রথম ম্যাচটি বিরষ্টির কারণে পরিত্যক্ত হয়েছিল।

সোমবার (৩০ সেপ্টেম্বর) করাচির ন্যাশনাল স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হয় দুদল। যেখানে প্রথমে ব্যাট করা পাকিস্তান নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে বাবর আজমের সেঞ্চুরিতে ৭ উইকেট হারিয়ে ৩০৫ রান করে। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ৪৬.৫ ওভারে ২৩৮ রানে গুটিয়ে যায় শ্রীলঙ্কা।

৩০৬ রানের টার্গেটে ব্যাটিং করতে নেমে পাক বোলারদের দাপটে ২৮ রানেই টপঅর্ডারের ৫ উইকেট হারিয়ে বসে সফরকারী শ্রীলঙ্কা। এর মধ্যে দুর্দান্ত বল করে তিন উইকেট তুলে নেন পেসার উসমান শিনওয়ারি।

ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে অবশ্য ঘুরে দাঁড়ায় শ্রীলঙ্কা। ১৭৭ রানের জুটিতে দলকে জয়ের দিকেই নিয়ে যাচ্ছিলেন শেহান জয়সুরিয়া ও দাসুন শানাকা। তবে দুই ওভারের ব্যবধানে তারা বিদায় নিলে হার নিশ্চিত হয়ে যায় তাদের। চার রানের জন্য সেঞ্চুরি বঞ্চিত জয়সুরিয়া ১০৯ বলে ৭ চার ও এক ছক্কায় ৯৬ রান করে সেই শিনওয়ারির বলে মাঠ ছাড়েন। শানাকা ৮০ বলে ৬৮ করেন।

পাকিস্তান বোলারদের মধ্যে সর্বোচ্চ ৫টি উইকেট দখল করেন। লেগস্পিনাত শাদাব খান ২টি উইকেট পান।

টসে জিতে এর আগে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে বাবরের ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ১১তম সেঞ্চুরিতে বড় সংগ্রহ পায় স্বাগতিকরা। ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান শেষ পর্যন্ত ১০৫ বলে ৮ চার ও ৪ ছক্কায় ১১৫ করে আউট হন। ৫৪ রান করেন ওপেনার ফখর জামান, আর ৪০ রান আসে হারিস সোহেলের ব্যাট থেকে। তবে শেষ দিকে ইফতিখার আহমেদ ২০ বলে ঝড়ো ৩২ করলে তিনশ রানের কোটা পার হয় পাকিস্তানের।

শ্রীলঙ্কার বোলারদের মধ্যে সর্বোচ্চ ২টি উইকেট পান ওয়ানিন্দু হাসারাংা।

ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হন উসমান শিনওয়ারি।

২০০৯ সালে শ্রীলঙ্কান দলের ওপর সন্ত্রাসী হামলার পর এবারই প্রথম পাকিস্তানে ওয়ানডে ম্যাচ অনুষ্ঠিত হলো। যদিও দলেত শীর্ষ ১০ তারকা ক্রিকেটার এই সিরিযে খেলতে আসেনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here